দীক্ষালয়



  • বাঙালির মুক্তির সনদ ৬-দফাঃ শেখ হাসিনা
    ৬-দফা দাবির ভিত্তিতে স্বায়ত্বশাসনের আন্দোলন আরও ব্যাপকভাবে দেশব্যাপী ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য সভা, সমাবেশ, প্রতিবাদ মিছিল, প্রচারপত্র বিলিসহ বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়। এই দাবির প্রতি ব্যাপক জনমত গড়ে তোলার কার্যক্রম শুরু হয়।
  • স্টেটসম্যান বঙ্গবন্ধুর সেরা ভাষণ!১৯ জুন,১৯৭৫।
    বাকাশাল সফল হলে বঙ্গবন্ধু হতেন পৃথিবীর অন্যতম সেরা স্টেটসম্যান। বাকাশালের প্রাঞ্জল ব্যাখা থেকে সহজেই বোঝা যায় বাকশাল শোষিত,নিপীড়িত,বঞ্চিত বাঙালি জাতির বিশ্বের বুকে উত্থানের জন্য বাস্তবসম্মত এক রোডম্যাপ ছিল। এই ভাষণে  বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক অভিজ্ঞতা, দেশ গঠনে প্রতিকূলতা ও সমাধান, দেশের মানুষের একতা,দেশের জনগন এবং দেশকে নিয়ে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন সহ সর্বোপরি বাকশাল কায়েমের মাধ্যমে বাংলাদেশকে বিশ্বের বুকে আত্ম মর্যাদাশীল রাস্ট্র হিসেবে প্রতিষ্ঠা বঙ্গবন্ধুর লক্ষ্য ছিল । কিন্তু ঘাতকেরা  সপরিবারে বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে বাঙালি জাতির বুকে ঘোর আমানিশা ডেকে নিয়ে আসে দীর্ঘসময়ের জন্য…
  • গাজায় হামাস-ইজরায়েল যুদ্ধে জয়ী কারা? হামাসের উত্থানে ইজরায়েলের ভূমিকা এবং হামাসের প্রাসঙ্গিকতা।
    হামাসের আত্মবিধ্বংসী হামলার কারণে ফিলিস্তিনীদের এর কতকাল ভুগতে হয় কে জানে।না হয় হামাসের রকেট হামলার বিপরীতে ইজরায়েলর বর্বর ধ্বংসযজ্ঞে বিধ্বস্ত হবে গাজা কিংবা ফিলিস্তিনি জনগণ হারাবে প্রাণ।পরাশক্তিদের মীমাংসার আশ্বাসে কিংবা প্রতিবাদ বার্তার ঘুরপাকে ইজরায়েলি হামলায় প্রভাবে বিলুপ্ত হতে হবে ফিলিস্তিনীদের।
  • প্রভাবশালী মুসলিম অধ্যুষিত দেশগুলোর সাথে ইজরায়েলের সম্পর্ক
    প্রভাবশালী মুসলিম দেশগুলো যদি ইজরায়েলকে ব্যবসায়িক,অর্থনৈতিক দিক দিয়ে বর্জন করতে পরে তখন  ইজরায়েল বেকায়দায় পড়বে!কিন্তু বর্তমান বিশ্বে কেউই নিজের অর্থনীতিকে বেকায়দায় ফেলবেনা কারণ প্রায় প্রত্যেক সেক্টরে ইজরাইলের অত্যাধিক সক্ষমতা।
  • ঈদ মোবারক
  • ফিলিস্তিনির ভবিষ্যত কি?শান্তি প্রতিষ্ঠায় ফাতাহ বা পিএলওর ভূমিকা! ফিলিস্তিনি- ইজরাইল সংঘাত(পর্ব-৩)
    ফাতাহ! পিএলও জোটের সবচেয়ে শক্তিশালী রাজনৈতিক দল। ফাতাহ ১৯৫৯ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। ফিলিস্তিনীদের রাজনৈতিক অধিকার রক্ষার স্বার্থে পিএলও(Palestine Liberation Oganization) রাজনৈতিক জোট গঠিত হয়।প্রকারান্তে একমাত্র হামাস ছাড়া ফিলিস্তিনের সকল রাজনৈতিক দল এখন ফাতাহর আওতাধীন পিএলও […]
Advertisements

অভিমত


Advertisements

জ্ঞানগৃৃহ


মুজিববাদ

মুজিববাদ কি? কেনই বা এত প্রয়োজনীয়!

মুজিববাদ সহজ কথায় বলতে গেলে মুজিবের জীবন দর্শন,রাজনৈতিক দর্শন এর সম্মিলন যে দর্শনের উপর ভর করে মুজিব বাঙালি জাতিকে এক সুরে গেঁথে ফেলে স্বাধীনতা সংগ্রামে লিপ্ত ও স্বাধীন করতে সক্ষম হয়েছিলেন বাংলাদেশকে।

দেশে দেশে বঙ্গবন্ধু

সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি শেখ মুজিবুর রহমানের সংগ্রামী জীবন কে গুরুত্ব দিয়ে যুক্তরাষ্ট্র,ভারত, ফ্রান্স, তুরস্ক তার স্মরণে বিভিন্ন উদ্যোগ নিয়েছে।জাতির জনকের নামে আমরা বাংলাদেশে অসংখ্য স্থাপনা দেখতে পাই,আমাদের দেশের প্রেক্ষপটে অত্যান্ত সাধারণ ঘটনা ।কিন্তু বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বঙ্গবন্ধুর নামে বিভিন্ন স্থাপনা, জাদুঘর, ভাস্কর্য, রাস্তা দেখতে পাওয়া যায়। এটা প্রকৃত অর্থে বঙ্গবন্ধুর বৈশ্বিক গ্রহণযোগ্যতার স্বরূপ।বঙ্গবন্ধু জীবিত অবস্থায় দেশের সীমা পরিসীমা ছড়িয়ে আন্তজার্তিক পরিমণ্ডলে নিজের অবস্থান যথেষ্ট শক্তিশালী ভাবমূর্তি গড়তে সক্ষম হয়েছিলেন।

বাকশালঃ উত্তরনের পথ

বাকশালের উদ্দেশ্য ছিল পুঁজিবাদী শোষকদের প্রতারণামূলক গণতান্ত্রিক শাসন এবং শোষনের অবসান ঘটিয়ে শোষনহীন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করা। জনগনের অর্থনৈতিক মুক্তির লক্ষ্যে বাকশাল গঠন করা হয়েছিল।


Advertisements

পাঠশালা


Advertisements
মুজিবরের ভাষণ

Advertisements

Advertisements

স্বাধীনতা যাদের হাত ধরে এসেছে


মুক্তিযুদ্ধের সর্বাধিনায়ক

বাঙালি জাতীয়তাবাদ

তারুণ্য

Advertisements

বাংলাদেশের অর্জন 🇧🇩🇧🇩🇧🇩🇧🇩🇧🇩🇧🇩🇧🇩🇧🇩🇧🇩🇧🇩

১৯৫২

ভাষা আন্দোলন

১৯৭১

স্বাধীনতা

১৯৮৯

স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলন

“ যার মনের মধ্যে আছে সাম্প্রদায়িকতা সে হলো বন্য জীবের সমতূল্য ”

শেখ মুজিবুর রহমান
Advertisements