গৌরবের ছাত্র রাজনীতি যাদের হাত ধরে পথভ্রষ্ট…

বাংলাদেশের জন্ম মূলত ছাত্র রাজনীতির গৌরবোজ্জ্বল ভূমিকার মাধ্যমে। বাঙালির সকল স্বাধিকার আন্দোলনে ছাত্ররা নেতৃত্ব দিয়েছে ,বুকের তাজা রক্ত ঢেলে দিয়ে মুক্ত করেছে স্বদেশকে বারবার।কিন্তু বর্তমানে ছাত্র রাজনীতির আগের গৌরব উজ্জ্বল ভূমিকা রূপকথার গল্পের মত শোনায়।কেন ছাত্র রাজনীতি বারবার কলুষিত, কারা ছাত্র রাজনীতি নষ্টের মূল হোতা এটা খুঁজতে গেলে অনেক রাঘববোয়ালের নাম বেরিয়ে আসবে।

আসুন দেখে নেই ছাত্ররাজনীতির ধ্বংসের কারিগর কারা!

১৯৭২ সালে জাসদ প্রতিষ্ঠিত হওয়ার সাথে সাথে স্বাধীন বাংলাদেশে সন্ত্রাস শুরু হয়, মুক্তিযুদ্ধের ব্যাবহার না করা অস্ত্র সামগ্রী এবং সর্বহারা এবং চরমপন্থী দের সাথে যোগসাজশে সারাদেশে ত্রাসের রাজত্ব কায়েম হয়।৭২-৭৫ সাল পর্যন্ত জাসদ, সর্বহারা এবং চরমপন্থীদের স্বাধীন বাংলাদেশ অস্থির সময় অতিবাহিত করে।মূলত জাসদ বঙ্গবন্ধু হত্যার পটভূমি রচনা করে,জাসদের সাথে বঙ্গবন্ধু হত্যাকারীদের আগে থেকে যোগাযোগ ছিল।অথচ এই জাসদের নেতারা একসময় মুজিবের আদর্শের রাজনীতি প্রতিষ্ঠা করার স্বপ্ন দেখতো । বঙ্গবন্ধু কে হত্যার পর ১৯৭৫-১৯৮০ দেশে ছাত্র রাজনীতি এক প্রকার নিষিদ্ধ ছিল।

জিয়া তার ক্ষমতায় থাকাকালিন ৭৫-৭৭ সাল পর্যন্ত রাজনীতি কে অবরুদ্ধ করে ফেলেন। কিন্তু জিয়ার রাজনৈতিক চিন্তায় সুদুরপ্রসারী ভূমিকা পালন করে ১৯৭৮ সালে ঘটে যাওয়া এক ঘটনা।

১৯৭৮ সালের অক্টোবর মাসে জিয়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে আসলে ছাত্রলীগের কর্মীদের কাছে লাঞ্ছিত হন। এক পর্যায়ে পরিস্থিতি সামলা দিতে না পেরে লজ্জিত জিয়া বিশ্ববিদ্যালয় ছেড়ে যায়।
জিয়া ছাত্র সংগঠনের প্রয়োজনীয়তা বুঝে ছাত্রদল প্রতিষ্ঠা করে। জিয়া চতুর ব্যাক্তি ছিলো,সে রাজনীতিতে যেমন ক্যাডার লালন শুরু করে অস্ত্র এবং অর্থ দিয়ে অন্যদিকে মেধাবী শিক্ষার্থীদের উপর টোপ ফেলতেন ,তাদের সমুদ্রে প্রমোদ ভ্রমণে নিয়ে যেতেন শিক্ষা সফরের নাম করে ,তারপর প্রলোভন দেখিয়ে ছাত্রদলে যোগ দিতে বাধ্য করতেন।ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের শিক্ষার্থী আসিফ নজরুল তৎকালে জিয়া থেকে সুবিধা গ্রহণ করেছিলেন। বুদ্ধিমান,আত্মসম্মানবোধ থাকা মেধাবী ছাত্ররা জিয়ার আমন্ত্রণ প্রত্যাখ্যান করেন ।সলিমউল্লাহ খান (আইন), আহমেদ আহসান (অর্থনীতি), ফেরদৌস হােসেন (রাষ্ট্রবিজ্ঞান), মাহমুদুর রহমান (মনােবিজ্ঞান), ও ইমতিয়াজ আহমেদ (আন্তর্জাতিক সম্পৰ্ক) জিয়ার আমন্ত্রণ প্রত্যাখান করেন জিয়ার রাজনৈতিক দুরভিসন্ধি বুঝতে পেরে।প্রমোদ ভ্রমনে হিজবুল বহরে কারণে বাংলাদেশ সরকারের ওই বছর ৪ কোটি ২০ লক্ষ টাকা গচ্চা যায়।


জিয়ার অর্থায়নে ছাত্রলীগ,জাসদ ছাত্রলীগ ,ছাত্র ইউনিয়নের অনেক নেতা দল পাল্টিয়ে ছাত্রদলে যোগ দেয় ,যেমন গয়েশ্বর চন্দ্র রায় জগন্নাথ হল ছাত্রলীগের সভাপতি ছিলেন, ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন ছিলেন মুহসীন হল ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক, মির্জা ফখরুল ইসলাম ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক।এরা সবাই জিয়ার আমলে ছাত্রদলে যোগ দেয়।এমনকি জিয়া শিক্ষাঙ্গনে হত্যার বিচারের সংস্কৃতি বন্ধ করে দিয়েছিল,সেভেন মার্ডারের প্রধান আসামী শফিউল আলম প্রধানকে জিয়া ক্ষমতায় এসে বঙ্গবন্ধুর আমলে দেওয়া যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ থেকে মুক্তি দিয়ে দেন, শফিউল আলম প্রধান আমৃত্যু বিএনপিকে সেবা দিয়েছিলেন।এমনকি জিয়ার প্রত্যক্ষ পৃষ্ঠপোষকতায় স্বাধীনতা বিরোধিতাকারী ও মুক্তিযুদ্ধের বিরুদ্ধে সশস্ত্র অবস্থানকারী যুদ্ধাপরাধী সংগঠন ইসলামী ছাত্রসংঘ খোলস পাল্টিয়ে ১৯৭৭ সালে ইসলামী ছাত্রশিবির নামে আবির্ভূত হয়।জিয়া ১৯৭৮ সালে এক ডিক্রি জারি করে ঘোষণা দেয় ছাত্র সংগঠন গুলোকে বৈধ হতে হল রাজনৈতিক দলের অঙ্গসংগঠন হতে হবে।মূলত জিয়া ছাত্র রাজনীতিকে এ জায়গায় ধ্বংস করে দেন ছাত্র রাজনীতির সাতন্ত্র নষ্ট করে দিয়ে।
অবৈধ স্বৈরাচারী শাসক জিয়া ও এরশাদের আমলে ছাত্রদল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে শক্তিশালী ছাত্র সংগঠনে পরিণত হয় । কারণ এরশাদ ছাত্রদলকে প্রথমে ভাল সমর্থন দিয়েছিল।

এরশাদ ও জিয়ার পদাঙ্ক অনুসরণ করে,জিয়ার মত এরশাদ নতুন একটা ছাত্র সংগঠন খোলে,নাম ছাত্র সমাজ।ছাত্র সমাজকে অস্ত্র ও অর্থের অবাধ প্রবাহ দিয়ে সারাদেশে শিক্ষাঙ্গনে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি তৈরি হয় । ১৯৮৩-৮৯ পর্যন্ত শিক্ষাঙ্গনে সহিংসতার জন্য ছাত্র সমাজকে চিরতরে নিষিদ্ধ করে বাংলাদেশ সরকার।ছাত্র সংগঠনগুলোর মধ্যে মারামারি লেগে থাকতো , তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে কত মেধাবী অকালে মৃত্যুবরণ করে,পঙ্গু হয়ে যায়,একাডেমিক ক্যারিয়ার শেষ হয়ে যায়।

জিয়ার পৃষ্ঠপোষকতায় প্রতিষ্ঠিত ছাত্রশিবিরের হাত ধরেই বাংলাদেশের ছাত্ররাজনীতিতে চূড়ান্ত অবনতি ঘটে। রাজশাহী ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে, কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে অসংখ্য নিরীহ শিক্ষার্থী প্রাণ হারায়,এবং হাজারের অধিক আহত হয়।শিবির বিশ্ববিদ্যালয় গুলোতে মধ্যযুগীয় কায়দায় হানাহানি শুরু করে।শিবিরের হামলায় গত ৪২ বছরে ৫০ এর অধিক ছাত্রলীগ ,ছাত্রদল,ছাত্র ইউনিয়ন,ছাত্র ফ্রন্ট, ছাত্র ফেডারেশন কর্মী খুন হয় । বিভিন্ন ছাত্র সংগঠনের কত কর্মী পঙ্গু হয়ে যায় শিবিরের কুখ্যাত রগ কাটা নীতির কারণে।

শিবিরের কুকীর্তি

১৯৮২ সালের ১১ মার্চ শিবিরের হামলায় মারা যান রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ নেতা মীর মোশতাক এলাহী।
১৯৮৪ সালে শিবির চট্টগ্রাম কলেজের সোহরাওয়ার্দী হলে ছাত্র ইউনিয়ন নেতা ও মেধাবী ছাত্র শাহাদাত হোসেনকে জবাই করে হত্যা করে। ১৯৮৬ সালে জাতীয় ছাত্রসমাজের নেতা আবদুল হামিদের হাতের কবজি কেটে নেয় শিবির ক্যাডারা।

১৯৮৮ সালে শিবিরের ক্যাডার বাহিনী ছাত্রমৈত্রী নেতা ডাক্তার জামিল আক্তার রতনকে কুপিয়ে ও হাত পায়ের রগ কেটে হত্যা করে। একই বছর চাঁপাইনবাবগঞ্জের বীর মুক্তিযোদ্ধা ও জাসদ নেতা জালালকে হত্যা করে তারা।

ওই বছরের ১৭ নভেম্বর শিবিরের হামলায় মারা যান রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র আসলাম হোসেন। এর পরদিনই শিবিরের হামলায় মারা যান রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র আজগর আলী।



ওই বছর ঘটেছে আরও কয়েকটি হত্যার ঘটনা। ১৭ জুলাই এসএম হলে বহিরাগত শিবির ক্যাডাররা হামলা চালিয়ে জাসদ ছাত্রলীগের রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সহ সভাপতি ও সিনেট সদস্য আইয়ুব আলী খান, বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাধারণ সম্পাদক ও সিনেট সদস্য আহসানুল কবির বাদল ও হল সংসদের ভিপি নওশাদের হাত-পায়ের রগ কেটে দেয়।



একই বছর রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক মো. ইউনূসের বাসভবনেও বোমা হামলা চালানো হয়।

১৯৮৮ সালের ২৪ সেপ্টেম্বর তিন জনকে হত্যা করে সিলেটের রাজনীতির ইতিহাসে কলঙ্কজনক অধ্যায়ের সৃষ্টি করে ছাত্রশিবির। এদিন শিবির ক্যাডাররা জাসদ ও ছাত্রলীগের মেধাবী নেতা মুনীর-ই-কিবরিয়া চৌধুরী, তপন জ্যোতি ও এনামুল হক জুয়েলকে হত্যা করে।

১৯৮৯ সালের ১৮ এপ্রিল শিবিরের হামলায় মারা যান রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র শফিকুল ইসলাম। ১৯৯০ সালের ২২ ডিসেম্বর হত্যা করা হয় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রমৈত্রীর সহ সভাপতি ফারুকুজ্জামানকে।



১৯৯২ সালের ১৭ মার্চ গুলি করে হত্যা করা হয় জাসদ ছাত্রলীগ কর্মী ইয়াসির আরাফাত। এ বছর শহীদ জননী জাহানারা ইমামের নেতৃত্বে যুদ্ধাপরাধী গোলাম আযমের বিচারের দাবিতে করা আন্দোলনে শিবির হামলা করে। এতে আহত হন জাসদ নেতা মুকিম। পাঁচদিন পর তিনি মারা যান।


১৯৯৩ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর খুন হন ছাত্রমৈত্রী নেতা জুবায়ের হোসেন রিমু। ১৯৯৪ সালে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রমৈত্রী নেতা প্রদ্যুৎ রুদ্র চৈতীর হাতের কব্জি কেটে নেওয়া হয়। ১৯৯৫ সালের ১৩ ফেব্রুয়ারি শিবিরের হাতে খুন হন ছাত্রমৈত্রীর আরেক নেতা দেবাশীষ ভট্টাচার্য।

১৯৯৭ সালে শিবিরের হামলা শিকার হন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ কর্মী বকুল।

১৯৯৮ সালে বরিশাল থেকে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা দিতে আসা ছাত্র আইয়ুব আলী শিবিরের হাতে নিহত হন। ১৮ মে চট্রগ্রাম শহরতলির বটতলী এলাকায় শহরগামী শিক্ষকবাসে শিবিরের গুলিবর্ষণের ঘটনায় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র মুসফিকুর সালেহীন নিহত হন।



একই বছর ২৪ মে সিলেটের ব্লু-বার্ড স্কুলের সামনে ছাত্রলীগ নেতা সৌমিত্র বিশ্বাসকে হত্যা করা হয়। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র ইউনিয়নের কর্মী সঞ্জয় তলাপত্রকে নির্মমভাবে হত্যা করা হয় এবছর।

২০০০ সালে বহুল আলোচিত ৮ মার্ডারের ঘটনা ঘটে চট্টগ্রামে। এ বছর চট্টগ্রামের বহদ্দারহাটে ৮ জন ছাত্রলীগ নেতাকর্মীকে প্রকাশ্য দিবালোকে ব্রাশফায়ার করে হত্যা করে শিবির ক্যাডাররা।

২০০১ সালে শিবিরের হাতে নিহত হন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের নেতা আলী মর্তুজা। এ বছর রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী হলে শিবির কর্মীরা কমান্ডো হামলা চালায়। এতে ছাত্রীদের লাঞ্ছিত ও রক্তাক্ত করে তারা।



২০০৪ সালে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ছাত্রীদের মিছিলে হামলা চালিয়ে শিবির ক্যাডাররা অর্ধশতাধিক ছাত্রীকে রক্তাক্ত করে। ওই বছর ৩১ আগস্ট শিবিরের হাতে নিহত হন সিলেট সরকারি ভেটেরিনারি কলেজের ছাত্র রফিকুল হক সোহাগ।



২০১০ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি শিবিরের সঙ্গে ছাত্রলীগের সংঘর্ষ হয়। এদিন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগ কর্মী ফারুক হোসেনকে হত্যা করে ম্যানহোলের মধ্যে ফেলে রাখে শিবির কর্মীরা। ১২ ফেব্রুয়ারি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজনীতি বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র এএএম মহিউদ্দিনকে শিবির ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে।

ছাত্রদলের তাণ্ডব

ছাত্রদল কর্মীরা বাংলাদেশর রাজনীতির ইতিহাসে বর্বর উপাখ্যান তৈরি করে।নিচে সামান্য নমুনা দেখুন।

২০০১ থেকে ২০০৬ পর্যন্ত ছাত্রদল ও শিবির দ্বারা ঘটিত ব্যাপক অপকর্মের অল্পকিছু নিম্নরূপ-
(চাদাবাজি ও টেন্ডারবাজী বাদে)…………

  • অধ্যাপক হুমায়ুন আজাদ কে হত্যার উদ্দেশ্যে কুপিয়ে জখম করা।ঢাবি তে অধ্যাপক আফতাব কে হত্যা।
  • রাবি তে অধ্যাপক ইউনুস কে খুন
  • চট্টগ্রাম এ অধ্যক্ষ গোপাল কৃষ্ণ মুহুরী কে হত্যা
  • শিবির নেতা সালেহী দ্বারা রাবি শিক্ষক ডঃ তাহের হত্যা
  • সানী হত্যা
  • ঢাবির শামসুন্নাহার হলের আবাসিক ছাত্রী দের উপর রাতের অন্ধকারে বর্বর হামলা
  • সিলেটে শিবির এর হামলায় ছাত্রদল কর্মী নিহত।
  • অন্তঃকোন্দলো ছাত্রদল নেতা খুন, শাবি বন্ধ।
  • অন্ত-কোন্দলে তিতুমীর এর ২ ছাত্রদল নেতা খুন
  • সিলেটে বিএনপির দুই গ্রুপের মারামারী, ছাত্রদল নেতা নিহত
  • মোহাম্মদপুর এ কমিটি গঠন নিয়ে ছাত্রদল নেতা হোসেন খুন
  • পটিয়ায় এলডিপির গাড়িবহরে ছাত্রদল এর হামলা, নিহত ২
  • বগুড়ায় ছাত্রদল কুপিয়ে হত্যা করেছে ছাত্রলীগ নেতাকে।
  • লক্ষীপুর এ আওয়ামীলীগ নেতাকে জবাই করেছে ছাত্রদল
  • রংপুর এ যুবলীগ নেতাকে ড্রীল মেশিন দিয়ে খুচিয়ে রগ কেটে হত্যা করেছে শিবির
  • ছাত্রদল ক্যডারদের তান্ডব, গৃহবধুর স্তন কর্তন।
  • ঢাবি তে মেয়েদের হলে(সামসুন্নাহার হল) রাতের আধারে ছাত্রদল ও পুলিশ এর হামলা।
  • রাবি তে শিবির ক্যডারদের সাথে ছাত্রদল ক্যডারদের ব্যপক বোমাবাজী ও গুলিবিনিময়
  • রাবিতে শিবির ক্যডারদের হামলায় ৩০ ছাত্রীসহ আহত ৫০।
  • ছাত্রদল যুবদল এর সাথে শিবির এর বন্দুকজুদ্ধ, ২৪জন গুলিবিদ্ধ, রাজশাহী পলিটেকনিক বন্ধ ঘোষনা।
  • ফটিকছড়ীতে ২ ছাত্রলীগ কর্মী কে হত্যা
  • ঢাবিতে ছয় সংগঠন এর সমাবেশ এ ছাত্রদল এর হামলা, শিক্ষকসহ ৫০ আহত।
  • ঢাবিতে ছাত্রলীগ সাঃস্বঃ অজয় কর খোকন এর উপর হামলা
  • তে ছাত্রলীগ সভাপতি ও সাঃস্বঃ সহ ২২জন কে পিটিয়ে আহত
    =বি চৌধুরীর উপর হামলা
    =ডঃ কামাল এর গাড়ী বহর এ হামলা
    =সকল হল দখল
  • শেরে বাংলা চিকিৎসা মহাবিদ্যালয় এ হামলা
  • বগুড়ায় চাদাবাজীকালে এবং মাদারীপুর এ ডাকাতিকালে ৭ ছাত্রদল নেতা আটক
  • চট্রগ্রাম মেডিকেল এ ছাত্রদল এর ত্রাস এর রাজত্ব কায়েম
  • ঢাবি তে ছাত্রদল ও পুলিশ এর নির্বিচারে পিটুনি
  • ছাত্রদলের দুই গ্রুপ এ বন্দুক যুদ্ধ ২০ জন গুলিবিদ্ধ।
  • বরগুনায় ছাত্রদল এর হামলা ভাংচুর। আহত ৪০, ১৪৪ ধারা জারি।
  • বুয়েটে অনশনকারী দের উপর ছাত্রদল এর হামলা
  • বগুড়ায় ছাত্রদল নেতা সজীব এর বাড়ী থেকে বিপুল অস্ত্র উদ্ধার
  • ঢাবি তে আবার ছাত্রদল এর তান্ডব
  • সাংসদ মেজর মান্নান এর প্রতিষ্ঠান এ ছাত্রদল এর তান্ডব
  • ছাত্রদল নেতা দ্বারা ব্যবসায়ী অপহরণ
  • ছাত্রদল এর হামলায় পাবনা পলিটেকনিক এ অধক্ষসহ ১৫ শিক্ষক লাঞ্চিত, ভাংচুর, তালা।
  • রাবি ক্যাম্পাস এ ছাত্রদল এর নেতা দ্বারা ছাত্রীর শ্লীলতাহানি ও অপহরণ চেষ্টা।
  • রাবি এ আবার ছাত্রদল এর তান্ডব ভাংচুর বোমাবাজী
  • ছাত্রীদের উপর ছাত্রদল এর তান্ডব, বিঃশ্বঃ বন্ধ ঘোষণা
  • নারী মিছিলে ছাত্রদল এর হামলা
  • তে ছাত্রদল এর দুই উপদলে সংঘর্ষ, আহত ৫০
  • ছাত্রদল নেতাদের স্বর্ণ এর দোকান লুট
  • দ্বারা জামায়াতুল এর জঙ্গী গঠন
  • বিকেএসপিতে দরপত্র ছিনতাইকালে ছাত্রদল নেতা গ্রেপ্তার
  • বিঃ এ ছাত্রদল এর দুই গ্রুপ এর সংঘর্ষ, আহত ৫
  • জাবি তে ছাত্রলীগ এর ৫ নেতা কর্মী কে ছাত্রদল নেতাদের পিটুনি।
  • চবি তে শিবির পিটিয়েছে ছাত্রদল কর্মীকে
  • ছাত্রদল দ্বারা ইডেনে সাধারন ছাত্রীদের পিটুনি দিয়ে হলছাড়া
  • ছাত্রদল নেত্রীদের জমজমাট সিটবানিজ্য
  • হাটহাজারীতে ছাত্রদল ও শিবির সংঘর্ষ, আহত ১০
  • আজিজুল হক কে কেটে সাগরে ভাসানোর হুমকি শিবিরের
  • ঢাবিতে ছাত্রলীগ কর্মীদের পিটিয়েছে ছাত্রদল
  • সিলেটে ছাত্রদল শিবির এর তান্ডব, ১০ মোটরসাইকেল এ আগুন
  • ছাত্রলীগএর মিছিলে ছাত্রদল এর হামলা, ককটেল।
  • আবার রাজশাহী পলিটেকনিক এ শিবির ও ছাত্রদল এর সংঘর্ষ
  • রংপুর কারমাইকেল এ শিবির ও ছাত্রদল এর সংঘর্ষ। বন্ধ ঘোষনা
  • চবিতে শিবির এর দফায় দফায় হামলা, সংবাদিকসহ আহত ২০
  • রংপুর কারমাইকেল এ শিবির ৮ মাসে ৭ বার ছাত্রীনিবাস এ হামলা চালিয়েছে।
  • ঢাবির চারুকলায় ছাত্রদল এর তান্ডব। ছাত্রীকে প্রহার।
  • সিলেট পলিটেকনিক এ শিবির ও ছাত্রদল এর সংঘর্ষ, আহত ৭
  • হলের দখল নিতে ছাত্রদলের মনির ও আসাদ গ্রুপ এর প্রচন্ড গোলাগুলি।
  • শ্রম আদালতে ছাত্রদল ক্যডারদের নজিরবিহীন হামলা
  • এ দিনভর ছাত্রদল ক্যডারদের তান্ডব, বিরোধীদলীয় উপনেতা জিম্মি
  • ঢাবি ক্যাম্পাস ঘিরে রেখেছে ছাত্রদল
  • ছাত্রলীগ এর প্রতিষ্ঠাবারষীকির অনুষ্ঠয়ানে বিভিন্ন স্থানে ছাত্রদল ক্যডারদের হামলা
  • এ শিবির-ছাত্রদল ক্যডারদের সংঘর্ষ
  • আলিয়া মাদ্রাসায় শিবির ও ছাত্রদলএর সংঘর্ষ, আহত ৫০
  • এর হামলায় লন্ডভন্ড রাবি
  • জাবিতে ছাত্রদল এর দুই গ্রুপ এ সংঘর্ষ, গোলাগুলী, আহত ৬০
  • ইবি তে খাবার নিয়ে শিবির-ছাত্রদল ক্যডারদের সংঘর্ষ গোলাগুলী, আহত ৫০
  • বরিশাল মেডিকেল এ শিবির-ছাত্রদল ক্যডারদের সংঘর্ষ, আহত ১৫
  • পাবনা এডওয়ার্ড কলেজে ছাত্রদল এর হামলা, অধক্ষের প্রাণনাশের চেষ্টা
  • ছিনতাইকালে ঢাকা কলেজ ছাত্রদল এর ২ নেতা গ্রেফতার
  • রাজধানীর ৫টি কলেজ ঘিরে ছাত্রদল এর বেপরোয়া চাদাবাজী
  • একে ৪৭ সহ গ্রেপ্তার ২ ছাত্রদল নেতা।
  • এক লাখ টাকার জাল নোট সহ ছাত্রদল নেতা গ্রেফতার
  • আজিজুল হক কলেজ এর পাশে মেস থেকে ২০০ ছাত্রীকে এলাকাছাড়া করতে শিবির এর তৎপরতা
  • কুমিল্লা সরকারী কলেজে প্রধানমন্ত্রীর ছবিসহ অধক্ষের কক্ষ ভাংচুর করেছে ছাত্রদল নতারা
  • জগন্নাথ হলে ছাত্রদল এর হামলায় অনুষ্ঠান পণ্ড, ৫ প্রাধ্যক্ষ লাঞ্ছিত
  • হলে ছাত্রদল এর দুই গ্রুপ এর সংঘর্ষ, আহত ২০
  • বুয়েটে ছাত্র, পুলিশ, সাংবাদিক পিটিয়ে বদলা নিল ছাত্রদল
  • ছাত্রদল এর দু-গ্রুপ এ বন্দুকযুদ্ধ বোমাবাজী, আহত ২০
  • মামলার আসামী ছাত্রদল নেতা একরাম এনএসআই তে
  • কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজে ছাত্রদল এর চাপে অযোগ্য ৯৭ জন ভর্তি
  • জাবিতে ছাত্রদল ক্যাডাররা সাংবাদিক পিটিয়েছে
  • পরশুরাম কলেজে ৩ ছাত্রলীগ নেতাকে পিটিয়েছে ছাত্রদল
  • রাজশাহীতে শ্রমিকদের উপর হামলা চালিয়েছে ছাত্রদল
  • ছাত্রদল এর ব্যপক ভাংচুর
  • চুয়াডাঙ্গায় র্যাবের গাড়ীতে ছাত্রদল এর বোমা হামলা
  • ঢামেক এ কমিটি গঠন নিয়ে ছাত্রদল এর ব্যপক ভাংচুর
  • কৃষি বিঃ এ ছাত্রদল এর দুই গ্রুপ এ সংঘরষ
  • ইবিতে ছাত্রদল এর ১২টি গাড়ী ভাংচুর
  • শিবির এর সাথে ছাত্রদল, ছাত্রলীগ সংঘর্ষ, আহত ১০০
  • বিএল কলেজে ছাত্রলীগ, ছাত্র ইউনিয়ন এর উপর শিবির এর হামলা
  • মেডিকেল এ শিবির ছাত্রদল সংঘর্ষ। আহত ২০
  • জবিতে ছাত্রদল এর দু-গ্রুপ এ সংঘর্ষ, আহত ৩০
  • ইডেনে ভর্তি বানিজ্য নিয়ে ছাত্রদল এর দু-গ্রুপ এ চুলাচুলি
  • চমেক এ শিবির ছাত্রদল সংঘর্ষ, ভাংচুর, আগুন। কলেজ বন্ধ ঘোষনা
  • মুন্সীগঞ্জ এ ছাত্রদল এর দু-গ্রুপ এ বন্দুকযুদ্ধ, গুলিবিদ্ধ ৩০

ছাত্র রাজনীতির বর্বর উপাখ্যান থেকে ছাত্রলীগকে বাদ দেওয়া যায়না । অসংখ্য শিক্ষার্থী হতাহত হয়েছে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের দ্বারা বিভিন্ন সময়ে। স্বাধীনতার পর ছাত্রলীগের নেতা কর্মীরা বারবার পথভ্রষ্ট হয়েছে

জাসদের আখ্যান থেকে শুরু জিয়া, এরশাদের আমলে অস্ত্র নির্ভর ক্যাডার ভিত্তিক রাজনীতি বাংলাদেশের ছাত্র রাজনীতিকে কলুষিত করে ফেলে,সে ধারা এখনো চলমান।যার ফলে ছাত্র রাজনীতির উপর জনমানুষ আস্থা হারিয়ে ফেলেছে।আশু সংস্কার না করলে ছাত্র রাজনীতির দিন দিন রঙ হারিয়ে অনেক করুণ উপাখ্যানের জন্ম দিবে।